বৃহস্পতিবার ৪ঠা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ই-পেপার   বৃহস্পতিবার ৪ঠা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ব্রেকিং নিউজঃ
লাশবাহী খাটিয়ার সঙ্গে রিকশার ধাক্কা লাগাকে কেন্দ্র দুপক্ষের সংঘর্ষে ১০ জন আহত নান্দাইলে 'তক্ষক’ রেখে পালিয়ে গেল পাচারকারীচক্র। নোয়াখালী সোনাইমুড়ী থেকে ৪০৫ পিস ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-১১ লক্ষ্মীপুর-২ আসন উপনির্বাচন আলোচনার শীর্ষে এডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন লক্ষ্মীপুর জেলা বেসরকারি মালিক সমিতির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত আলোচিত পাপুলের লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুরে-লক্ষ্মীপুর)শুন্য আসনে এমপি পদে উপনির্বাচন ১১ এপ্রিল ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় আসছেন বৃহস্পতিবার স্পেকট্রাম নিলাম ৮ মার্চ কার্টুনিস্ট কিশোরের ৬ মাসের জামিন ভাসানচরের পথে ২২৬০ রোহিঙ্গা
কমেছে যক্ষ্মার মতো সংক্রামক ব্যাধি!
প্রকাশ: ৩১ জানুয়ারি, ২০২১, ৯:২২ পূর্বাহ্ণ |
অনলাইন সংস্করণ

কমেছে যক্ষ্মার মতো সংক্রামক ব্যাধি!

করোনাভাইরাস কেড়ে নিয়েছে অনেক কিছু। আবার ফিরিয়ে দিয়েছে মাস্ক পরার মতো কিছু অভ্যাসও। আর তাতেই নাকি কমেছে যক্ষ্মার মতো সংক্রামক ব্যাধির প্রকোপ। দাবি কলকাতা পৌরসভার। বায়ুবাহিত রোগ যক্ষ্মা (টিবি) হাঁচি-কাশির মতো ড্রপলেট পেলেই ছড়িয়ে পড়ে। অনেকটা করোনার মতো। বিশেষজ্ঞরা বলেন, কোনো যক্ষ্মারোগী সঠিক চিকিৎসা না করালে তার থেকে বছরে ১৫ জনের মধ্যে এই রোগ ছড়িয়ে পড়ে। এই রোগ সংক্রামক ও এতে মৃত্যুহার বেশি। খবর ডয়চে ভেলের।

যক্ষ্মা রোগী কমেছে

করোনা ঠেকাতে মাস্ক পরার প্রবণতা বেড়েছে। তার ফলে ফ্লু, নিউমোনিয়া, হাম ও যক্ষ্মা প্রভৃতি ব্যাকটিরিয়াঘটিত রোগ ক্রমশ কমেছে। ২০১৯ সালে পশ্চিমবঙ্গে ও কলকাতায় যক্ষ্মারোগীর সংখ্যা ছিল যথাক্রমে ১ লাখ ৪০ হাজার ও ১৬ হাজার। ২০২০-তে তা দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ৮০ হাজার ও ৯,৯৭৫। কলকাতা পৌরসভার স্বাস্থ্য দফতরের কর্মকর্তারা মনে করছেন, এটা মাস্ক পরার সুফল। কিন্তু তার জন্যই কি যক্ষ্মা এতটা কমে গেল?

বিশিষ্ট বক্ষরোগ বিশেষজ্ঞ পার্থপ্রতিম ভট্টাচার্য বলেন, ‘মাস্ক পরলে সংক্রমণ কমতে পারে। তবে কলকাতা পৌরসভা এই তথ্য কীভাবে সংগ্রহ করেছে, সেটাও দেখতে হবে। কাশির সঙ্গে যাদের টিবির জীবাণু বেরোচ্ছে, তেমন কতজন মাস্ক পরেছেন, বাড়িতে পরেছেন কি না, বাড়ির লোকদের সংক্রমণ হয়েছে কি না, এসব ভাবার ব্যাপার আছে। লকডাউনের জন্য অনেক জায়গায় ভিড় কম হয়েছে। ভিড়ে টিবি রোগীরা যাননি, সেজন্যও টিবি কম ছড়াতে পারে।

করোনায় যক্ষ্মার চিকিৎসা

অথচ গত জুন মাসে লন্ডন স্কুল অব হাইজিন এবং ট্রপিক্যাল মেডিসিনের গবেষকরা যে ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন, তা উদ্বেগের। আগে ভারতে যক্ষ্মায় প্রতিদিন চার হাজার রোগী মারা যেতেন। গবেষকদের দাবি, সেই সংখ্যা আগামী পাঁচ বছরে ৯৫ হাজার হয়ে যাবে। কারণ, মহামারি মোকাবিলাতেই চিকিৎসকরা ব্যস্ত। অন্যান্য রোগের তেমন চিকিৎসা হয়নি। এর প্রভাব পড়বে আগামী পাঁচ বছরে। ফলে যক্ষ্মা আরও মারাত্মক হবে। ডাব্লিউএইচও-এর প্রাক্তন পরামর্শদাতা ও সিনিয়র ভাইরোলজিস্ট ডা. অমিতাভ নন্দী বলেন, ‘‘প্রত্যক্ষ সমীক্ষা, অর্থাৎ ঘরে ঘরে গিয়ে টিবি রোগী শনাক্ত করা এবং পরোক্ষ সমীক্ষা, অর্থাৎ চিকিৎসকের কাছে আসা যক্ষ্মারোগীর হিসেব, এই দুটিই লকডাউনে ব্যাহত হয়েছে। টিবি একটা ক্রনিক রোগ। এর সম্পূর্ণ প্রকাশ পেতে কয়েক মাস, এমনকি কয়েক বছর সময় লাগে। মার্চ-এপ্রিল থেকে মাস্ক পরলাম আর তৎক্ষণাৎ সুফল পেয়ে যাব, এটা হয় না।

স্বাস্থ্য দফতর প্রতি বছর ১ লাখ ৪০ হাজার যক্ষ্মারোগী চিহ্নিতকরণের লক্ষ্য নিয়ে এগোয়। এবার তার অর্ধেকের বেশি চিহ্নিত করা গিয়েছে। লকডাউনের মধ্যে শহরের ১৮০টি জায়গায় যক্ষ্মার চিকিৎসাকেন্দ্র খোলা ছিল। রোগীদের বাড়িতে ওষুধ পৌঁছানো হয়েছে। এখানেই লুকিয়ে আছে সমস্যা। যক্ষ্মা নির্ণয়ের জেনএক্সপার্ট মেশিন ব্যবহার করা হয়েছে করোনা (আরটিপিসিআর) পরীক্ষার জন্য। ফলে চিহ্নিতকরণ থমকে গেছে। তার ওপর লকডাউনের জেরে মানুষের আর্থিক অবস্থা খারাপ হয়েছে, এ জন্য অপুষ্টি বাড়বে। ২০২৫ সালের মধ্যে ‘ন্যাশনাল টিউবারকিউলোসিস এলিমিনেশন প্রোগ্রাম’ (এনটিইপি) প্রকল্পে ভারতকে যক্ষ্মামুক্ত করার পরিকল্পনা ছিল।

তার বক্তব্য, যত্রতত্র থুতু ফেলা বা বাইরে খাওয়াদাওয়া কমেছে কি না, সেটাও দেখতে হবে। বাড়িতেও রোগীরা মাস্ক পরে থাকেন না। আবার রোগীদের একাংশ দূরে যাতায়াত করছেন না। ফলে আগামী পাঁচ বছরে টিবি এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায় ছড়িয়ে না-ও পড়তে পারে, রোগটা স্থানীয় স্তরে সীমাবদ্ধ হয়ে যাবে।

ভাটপাড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালের যক্ষ্মা বিশেষজ্ঞ গোবিন্দচন্দ্র মল্লিক বলেন, ‘মাস্ক পরলে টিবি হয়তো ছড়াবে না। তবে অনেক রোগী বুঝে ওঠার আগেই বাড়ির সদস্যদের মধ্যে রোগ ছড়িয়ে দেন। গ্রামীণ এলাকায় অনেক রোগী ছ-মাস ধরে নিয়মিত চিকিৎসাও করান না। পরিযায়ী শ্রমিকেরা কতটা রোগনির্ণয় করিয়েছেন বা ওষুধ খাচ্ছেন, সেটাও দেখতে হবে।

 

 

Share Button




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

প্রধান উপদেষ্টাঃ শাহজাদা পারভেজ টিনু।
আইন উপদেষ্টাঃ এ্যাড আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ
(জজকোর্ড ঢাকা)
সম্পাদক ও প্রকাশক: এইচ এম মোহিবুল্লাহ (মোহিব)
নির্বাহী সম্পাদকঃ মো: মোস্তাফিজুর রহমান।
ব্যবস্থাপনা পরিচালক: নূর-ই আলম আজাদ।
যুগ্ন সম্পাদকঃ আমিনুর রহমান রুবেল ও এস এম আমিনুল ইসলাম।
সাহিত্য সম্পাদকঃ খলিলুর রহমান তাং ও ইউসুফ আলী তাং।
বার্তা সম্পাদক : মো: নূর হোসেন।

অফিসঃ
ঢাকাঃ সুলতান টাওয়ার (৩য় তলা) টংঙ্গী বাজার, গাজিপুর, ঢাকা।
বরিশালঃ ১০ নং ওয়ার্ড, বাঁধ রোড,ষ্টীমার ঘাট মার্কেট (৩য় তলা)
কলাপাড়াঃ মমতা মার্কেট,বাদুড় তলী সূইজগেট,কলাপাড়া,পটুয়াখালী।
E-mail: somoynewskp@gmail.com
মোবাইলঃ 01721987722

Design & Developed by
  লাশবাহী খাটিয়ার সঙ্গে রিকশার ধাক্কা লাগাকে কেন্দ্র দুপক্ষের সংঘর্ষে ১০ জন আহত   নান্দাইলে ‘তক্ষক’ রেখে পালিয়ে গেল পাচারকারীচক্র।   নোয়াখালী সোনাইমুড়ী থেকে ৪০৫ পিস ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-১১   লক্ষ্মীপুর-২ আসন উপনির্বাচন আলোচনার শীর্ষে এডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন   লক্ষ্মীপুর জেলা বেসরকারি মালিক সমিতির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত   আলোচিত পাপুলের লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুরে-লক্ষ্মীপুর)শুন্য আসনে এমপি পদে উপনির্বাচন ১১ এপ্রিল   ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় আসছেন বৃহস্পতিবার   স্পেকট্রাম নিলাম ৮ মার্চ   কার্টুনিস্ট কিশোরের ৬ মাসের জামিন   ভাসানচরের পথে ২২৬০ রোহিঙ্গা   সিরাজগঞ্জের সব রুটে পরিবহন ধর্মঘট চলছে   ‘বিএনপির ভয়ে বাস চালানো বন্ধ করে দেয় মালিকরা’-ওবায়দুল   ময়নাতদন্তের মৃত যুবক নড়ে উঠল!!   করোনাভাইরাসের কোনো টিকার ট্রায়াল আপাতত হচ্ছে না   স্বর্ণের বাজারে অস্থিরতা কাটছেই না,স্বর্ণের দাম কমল ভরিতে যত   খেলতে গিয়ে গরম দুধে পড়ে শিশুর মৃত্যু   আলজাজিরার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে ৫০০ মিলিয়ন ডলারের মানহানির মামলা করেছেন বাংলাদেশি প্রবাসীরা   বাবার কাছে যেতে চাওয়ায় মায়ের হাতে মেয়ে খুন!!   ঈশ্বরগঞ্জে জমি লিখে না দেওয়ায় বৃদ্ধ পিতা-মাতার উপর সন্তানদের অমানবিক নির্যাতন।   লক্ষ্মীপুরে উদযাপন হলো দৈনিক সময়ের আলো’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী