বুধবার ২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৮ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ই-পেপার   বুধবার ২১শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা না করে নামের শেষে ‘মাদানী’
প্রকাশ: ৮ মার্চ, ২০২১, ৯:২০ পূর্বাহ্ণ |
অনলাইন সংস্করণ

মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা না করে নামের শেষে ‘মাদানী’

সময় নিউজ বিডিঃ  মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা না করে নামের শেষে ‘মাদানী’ উপাধি ব্যবহার করে আসছিলেন  আলোচিত শিশু বক্তা রফিকুল ইসলাম।এছাড়া এই উপাধি ব্যবহার করায় নিজের নামের সঙ্গে এই শিশুবক্তার নাম মিলে যাওয়ায় অনেকটাই বিব্রত ও বিরক্ত হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মদিনা শাখার আমীর ও সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সদস্য মাওলানা রফিকুল ইসলাম মাদানী।এই দুই কারণে শিশুবক্তা খ্যাত রফিকুল ইসলামকে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট শরীফুল হাসান খাঁন লিগাল নোটিশ পাঠান। 

 

 

এমন নোটিশ পেয়ে মনক্ষুণ্ন ও হতাশ হয়েছেন শিশুবক্তা রফিকুল ইসলাম।তিনি কেন মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা না করেও ‘মাদানী’ উপাধি ব্যবহার করেছেন, তার ব্যাখ্যা দিয়েছেন।সম্প্রতি এক মাহফিলে হাজির হয়ে এ শিশুবক্তা জানান, নিজের নামের সঙ্গে জুড়ে যাওয়া শিশুবক্তা উপাধিটি মুছে ফেলতে এই  পথ অবলম্বন করেছিলেন। তিনি এখন থেকে আর শিশুবক্তা হিসেবে পরিচিতি পেতে চান না।তবে মদিনায় পড়ালেখা না করলেও তিনি বিশেষ একটি কারণে মাদানী উপাধি ব্যবহার করতে পারবেন বলে দাবি করেন রফিকুল ইসলাম।

 

 

বিস্তারিত ব্যাখ্যা দিয়ে বলেন, আলেমরা তাদের নামের শেষে এমন শব্দ জুড়ে দেন যা দিয়ে তাদের নির্দিষ্টভাবে চিহ্নিত করা যায়। এটি একটি রসম। কেউ নামের শেষে তিনি যে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিগ্রি নিয়ে এসেছেন তা জুড়ে দেন। যেমন মদিনা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাশ করে এলে মাদানী, মিসরের আজহার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষালাভ করলে আজহারী, দেওবন্দ থেকে এলে কাসেমি বা দেওবন্দী উপাধি ব্যবহার করেন আলেমরা। কেউ কেউ আবার তার জন্মস্থানের নাম ব্যবহার করেন। দেশে অনেকে নিজ মাদ্রাসার নাম ব্যবহার করেন। যেমন মোহাম্মদপুরের রহমানিয়া মাদ্রাসা থেকে শিক্ষালাভকারীরা রহমানী, জামিয়া মাহমুদিয়া মাদ্রাসার ছাত্ররা মাহমুদী ব্যবহার করে।

 

 

এরপর রফিকুল ইসলাম প্রশ্ন করেন, আমি জামিয়া মাদানিয়া বারিধারার শিক্ষার্থী হিসেবে কি তাহলে মাদানী লিখতে পারি না?রফিকুল ইসলাম বলেন, আমার এই মাদানী উপাধি ব্যবহারে আমার বারিধারা মাদ্রাসার শিক্ষকরা কখনো বিরোধিতা করেননি। তাদের পরামর্শ নিয়েই আমি এই উপাধি ব্যবহার করেছি। আমি শিশুবক্তা হিসেবে আর পরিচিতি পেতে চাই না। যখন শিশু থাকব না তখনো কি এই উপাধি নিয়েই থাকতে হবে আমাকে? যারা আমাকে শিশুবক্তা বলেন একসময় তাদের মাহফিলে যাওয়া বন্ধ করে দিই। এরপরও যখন নাম থেকে শিশুবক্তা উপাধি মুছে ফেলতে ব্যর্থ হচ্ছিলাম তখন শিক্ষকদের পরামর্শে মাদানী উপাধি গ্রহণ করি।

 

 

ক্ষোভের সুরে এই বক্তা বলেন, নামের মিলের কারণে সমস্যায় পড়ায় হেফাজতের ওই নেতা বিষয়টি হেফাজতের মহাসচিবকে বলতে পারতেন। মামুনুল হকের মতো নেতাদের বলতে পারতেন। আমার শিক্ষকদের কাছে নালিশ করতে পারতেন। বা আমাকে সরাসরি বা মেসেজে জানাতে পারতেন। কিন্তু তা না করে আমার বাড়িতে সরাসরি উকিল নোটিশ পাঠিয়েছেন। এতে আমার সহজসরল মা ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছেন। এলাকার লোকজন আমাকে ‘জাল মাদানী’ বলে কটাক্ষ করছে। দেশের জাতীয় দৈনিকে আমাকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হচ্ছে। এতে আমার সম্মানহানি ঘটছে। অথচ এই মাদানী উপাধি ব্যবহারে আমি ধর্মীয়, রাষ্ট্রীয় বা উপমহাদেশের কোনো নিয়ম ভঙ্গ করিনি। আমি ভাইরাল হতেও এই উপাধি ব্যবহার করিনি।

 

 

উল্লেখ্য,নেত্রকোনার এই ওয়ায়েজ রফিকুল ইসলামকে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি মাওলানা রফিকুল ইসলাম মাদানীর পক্ষে পাঠানো নোটিশে বলা হয়, আপনি নোটিশ গ্রহিতা মদিনা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা না করে অথবা মদিনা মনোয়ারায় বসবাস না করা সত্ত্বে দীর্ঘদিন যাবত বেআইনিভাবে নিজের নামের সঙ্গে ‘মাদানী’ পদবী ব্যবহার করে আসছেন। শুধুমাত্র মানুষকে বিভ্রান্ত করে অনৈতিক ফায়দা হাসিলের উদ্দেশ্যে প্রতারণামূলকভাবে সত্য গোপন করে আলেম ওলামাসহ পাঠকদের কাছে আমার মক্কেলের গ্রহণযোগ্যতাকে নিজের নামে ব্যবহার করার হীন উদ্দেশ্যে নিজের নামের সাথে ‘মাদানী’ নাম পদবী ব্যবহার করছেন। যা সম্পূর্ণভাবে অনৈতিক ও বেআইনি।

 

 

আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ‘মাদানী’ পদবী ব্যবহার করা থেকে বিরত না থাকলে শিশুবক্তার ওপর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানানো হয় নোটিশে।প্রসঙ্গত, তরুণ ওয়ায়েজ মাওলানা রফিকুল ইসলাম রাজধানীর জামিয়া মাদানীয়া বারিধারা মাদ্রাসায় পড়াশোনা করেছেন। শারীরিক আকৃতিতে ছোট হওয়ায় শিশু বক্তা হিসেবে পরিচিত তিনি। মাওলানা রফিকুল ইসলাম নেত্রকোনা জেলার পশ্চিম বিলাশপুর সাওতুল হেরা মাদ্রাসার পরিচালক বলে জানা গেছে। এছাড়া ২০ দলীয় জোটভূক্ত জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ও রাবেতাতুল ওয়ায়েজিনের সঙ্গে যুক্ত তিনি।

Share Button




সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

প্রধান উপদেষ্টাঃ শাহজাদা পারভেজ টিনু।
আইন উপদেষ্টাঃ এ্যাড আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ
(জজকোর্ড ঢাকা)
সম্পাদক ও প্রকাশক: এইচ এম মোহিবুল্লাহ (মোহিব)
নির্বাহী সম্পাদকঃ মো: মোস্তাফিজুর রহমান।
ব্যবস্থাপনা পরিচালক: নূর-ই আলম আজাদ।
যুগ্ন সম্পাদকঃ আমিনুর রহমান রুবেল ও এস এম আমিনুল ইসলাম।
সাহিত্য সম্পাদকঃ খলিলুর রহমান তাং ও ইউসুফ আলী তাং।
বার্তা সম্পাদক : মো: নূর হোসেন।

অফিসঃ
ঢাকাঃ সুলতান টাওয়ার (৩য় তলা) টংঙ্গী বাজার, গাজিপুর, ঢাকা।
বরিশালঃ ১০ নং ওয়ার্ড, বাঁধ রোড,ষ্টীমার ঘাট মার্কেট (৩য় তলা)
কলাপাড়াঃ মমতা মার্কেট,বাদুড় তলী সূইজগেট,কলাপাড়া,পটুয়াখালী।
E-mail: somoynewskp@gmail.com
মোবাইলঃ 01721987722

Design & Developed by
  মোংলায় অসহায় ছিন্নমূল পথচারীদের ইফতার দেয়া হয়েছে মোংলা থানা পুলিশের উদ্যােগে।   লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জে অস্ত্রসহ ৩ ডাকাত ও যাবতজীবন সাজাপ্রাপ্ত  আসামী গ্রেপ্তার   ময়মনসিংহে ডিবির হাতে তিন হেরোইন ব্যবসায়ী গ্রেফতার   ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৯১ জনের মৃত্যু   কৃষি অর্থনীতির সঙ্গে শিল্পেও বিশেষ নজর দিয়েছি: প্রধানমন্ত্রী   কৃষকদের ধান কেটে দিতে নেতাকর্মীদের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর   পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দুইয়ে চেন্নাই   সিরিয়ায় আইএস ঘাঁটিতে রুশ বিমান হামলায় নিহত ২০০   ইন্দোনেশিয়ায় ৬ মাত্রার ভূমিকম্প   হেফাজতের তাণ্ডব: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গ্রেপ্তার আরও ৭   করোনায় মৃত্যু হলে ব্যাংকার পাবেন ৫০ লাখ টাকা   লক্ষ্মীপুরে বেপরোয়া মোটরসাইকেলের আঘাতে প্রাণ গেল সাইকেল আরোহী ইমামের   ফকিরহাটে উদ্ধার হওয়া চার শিশু-কিশোরকে পরিবারের নিকট হস্তান্তর   খুলনা মহানগর পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে গত ২৪ ঘন্টায় মাদকসহ আটক ৩   খুলনা নগরীর খালিশপুরের চায়ের দোকানী লিটন হত্যায় ২ জনের স্বীকা‌রো‌ক্তিমূলক জবানব‌ন্দি প্রদান ক‌রেন   মোল্লাহাটে হেফাজতকর্মীদের হামলায় ওসিসহ ৫ পুলিশ সদস্য আহত   বোরহানউদ্দিনে জমি বিরোধে বিধবা নাসরিন ও তার স্কুল পড়ুয়া মেয়েদের উপর হামলা।   ময়মনসিংহে ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেলের চালক সহ নিহত দুই   লক্ষ্মীপুরে প্রেমিকের ছুরিঘাতে গৃহবধূ খুন : গণধোলাইয়ে প্রেমিক নিহত   মাহেন্দ্র-পিকআপের সংঘর্ষ, নিহত ২