রবিবার ৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ ২২শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ই-পেপার   রবিবার ৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

ব্রেকিং নিউজঃ
এই সরকার একটা অভয়দ সরকার বলে মন্তব্য করেছেন ডাঃ মাহবুবুর রহমান লিটন। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা মুখে যা বলেন তা তিনি করে দেখান'।।  বই মেলায় আসছে সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ এর বই ❝অসমাপ্ত সেই তুমি❞ টেকনাফে বিজিবি'র পৃথক অভিযান, ২ লক্ষাধিক ইয়াবা জব্দ। কাশিয়ানীতে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার। কাশিয়ানীতে নকল সার কারখানার সন্ধান। আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সাংবাদিক কল্যাণ সংস্থার কাশিয়ান উপজেলা শাখার উদ্বোধন।  তুমব্রু সীমান্তে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে বিজিবি মহাপরিচালক। ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলা সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-২। পটুয়াখালীতে কলেজের উপ-অধ্যক্ষ নিয়োগে প্রক্রিয়ায় জটিলতা,ভুক্তভোগীর ক্ষোপ প্রকাশ। 
ফলন বিঘায় ৫০ মণ!, ধানের নাম ‘ফাতেমা’!
ইসরাত জাহান কনিকাঃ-
প্রকাশ: ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ১:৫৫ অপরাহ্ণ |
অনলাইন সংস্করণ

ফলন বিঘায় ৫০ মণ!, ধানের নাম ‘ফাতেমা’!

সময় নিউজ বিডিঃ-   ধানের নাম ‘ফাতেমা’। ফলন বিঘা প্রতি ৫০ মন। নওগাঁ অঞ্চলে সাড়া ফেলেছে ব্যাপক। জেলার মান্দা উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের এক কৃষকের চাষ করা ‘ফাতেমা’ জাতের ধান ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

এর প্রতিটি শীষে পাওয়া গেছে প্রায় এক হাজারটি ধান। দেশে উৎপাদিত প্রচলিত জাতের ধানের চেয়ে এই ধানের ফলন প্রায় তিনগুণ।

মান্দা উপজেলার গনেশপুর ইউনিয়নের দোশতীনা গ্রামের সৌখিন কৃষক আশরাফুল ইসলাম বশিরের ওই ধান দেখতে এবং কিনতে বিভিন্ন এলাকা থেকে মানুষ ভিড় জমাচ্ছে তার বাড়িতে। বশির পেশায় একজন উকিল। নওগাঁ জজ কোর্টের একজন আইনজীবি তিনি। একই সঙ্গে আধুনিক চাষাবাদে রয়েছে তার ব্যাপক আগ্রহ। গতানুগতিক কৃষির পরিবর্তে নতুন জাতের এ ধান উৎপাদনে তিনি সাফল্য পেয়েছেন। লাভজনক হওয়ায় তার মতো এলাকার অনেকেই এখন এই নতুন জাতের ধান চাষের জন্য আগ্রহ দেখাচ্ছেন।

জেলা কৃষি বিভাগ জানিয়েছে, এত অধিক ফলনশীল জাতের ধান দেশের আর কোথাও আছে বলে তাদের জানা নেই। ‘ফাতেমা’ জাতের এই ধান কোন জাতের এবং কোথা থেকে কিভাবে এলো এসব জানতে গবেষণার কাজ শুরু করেছে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট, বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন এবং মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট।

দেখতে ব্রি-২৮ ধানের মতো এই জাতের বৈশিষ্ট্য উল্লেখ করে বশির জানান, অন্য ধানের মতোই এ ধানের চাষ পদ্ধতি। আউশ, আমন ও বোরো তিন মৌসুমেই এ ধানের চাষ করা যায়। তবে বোরো মৌসূমে এর উৎপাদন সবচেয়ে বেশি হয়ে থাকে। গাছের উচ্চতা প্রায় ৫ফুট, যা অন্য ধানের তুলনায় বেশি। গাছগুলো শক্ত হওয়ায় হেলে পড়ে না। আর এক একটি ধানের শীষে ৭৫০-১০০০টি করে ধান হয়। সাধারণ ধানের তুলনায় তিন থেকে চার গুণ বেশি। ফলে এর উৎপাদনও অনেক বেশি। চলতি মৌসূমে তিনি দেড় বিঘা জমিতে প্রায় ৭৫মণ ধান পেয়েছেন। এধানে রোগ ও পোকামাকড়ের হার তুলনামূলক কম। এছাড়া চাল খুব চিকন ও ভাতও খেতে সুস্বাদু।

তিনি জানান,বীজতলা তৈরি করার পর ১৫০ থেকে ১৫৫ দিনের মধ্যে ধান কাটা যায়। এই ধান ঝড়, খড়া এবং লবণাক্ততা সহনীয়। ওই জাতের প্রতিটি ধানগাছের দৈর্ঘ্য ১১৫ থেকে ১৩০ সেন্টিমিটার, গুছি গড়ে আটটি, প্রতিটি ধানের ছড়ার দৈর্ঘ্য ৩৬ সেন্টিমিটার, গড়ে দানার সংখ্যা এক হাজারের ওপরে।

জানা গেছে, বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট উপজেলার বেতাগা ইউনিয়নের চাকুলিয়া গ্রামে লেবুয়াত শেখ (৪০) নিজেদের জমিতে ২০১৬ সালে প্রথম ওই ধান চাষ করেন। ওই বছর বোরো মৌসুমে তাঁর বাড়ির পাশে জমিতে হাইব্রিড আফতাব-৫ জাতের ধান কাটার সময় তিনটি ভিন্ন জাতের ধানের শীষ তিনি দেখতে পান। ওই তিনটি শীষ অন্যগুলোর চেয়ে অনেক বড় এবং শীষে ধানের দানার পরিমাণও অনেক বেশি ছিল। এরপর ওই ধানের শীষ তিনটি বাড়িতে এনে শুকিয়ে বীজ হিসেবে ব্যবহার করে এ ধান চাষ শুরু করেন। তিনি তার মায়ের নামানুসারে নাম না জানা এই ধানের নাম রাখেন ‘ফাতেমা ধান’।

বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা কৃষক লিটন, রঞ্জু, মামুন, আতাব আলী জানান, অনেক ফলন হচ্ছে শুনে তারা কৃষক বশিরের এ ধান দেখতে এসেছেন এবং তার কাছ থেকে বীজ সংগ্রহ করেছেন। আগামীতে তারা এ ধান চাষ করবেন।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপপরিচালক কৃষিবিদ সামসুল ওয়াদুদ বলেন, ‘ওই ধানের ফলন শুধু দেশ নয়, গোটা বিশ্বকে তাক লাগাতে পারে। এত বেশি ফলন পাওয়া যায়, এমন কোনো জাতের ধান দেশে আছে বলে আমার জানা নেই।’ তিনি বলেন, ‘এই ধান খড়া ও লবণ সহ্যকারী এবং সারাদেশে চাষের উপযোগী। মনে হচ্ছে, সারা দেশে ওই ধান চাষ করা যাবে। এই ধান যদি সারা দেশে চাষ করা যায় তাহলে বার্ষিক উৎপাদন পাঁচ কোটি টন ছাড়িয়ে যাবে।’

Share Button




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

This image has an empty alt attribute; its file name is add-1-1024x672.jpg

সর্বাধিক পঠিত

  • প্রধান উপদেষ্টাঃ শাহজাদা পারভেজ টিনু।
    আইন উপদেষ্টাঃ এ্যাড আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ
    (জজকোর্ড ঢাকা)
    সম্পাদক ও প্রকাশক: এইচ এম মোহিবুল্লাহ (মোহিব)
    নির্বাহী সম্পাদকঃ মো: মোস্তাফিজুর রহমান।
    ব্যবস্থাপনা পরিচালক: নূর-ই আলম আজাদ।
    যুগ্ন সম্পাদকঃ আমিনুর রহমান রুবেল ও এস এম আমিনুল ইসলাম।
    সাহিত্য সম্পাদকঃ খলিলুর রহমান তাং ও ইউসুফ আলী তাং।
    বার্তা সম্পাদক : এস এম আওলাদ হোসেন।

অফিসঃ
ঢাকাঃ সুলতান টাওয়ার (৩য় তলা) টংঙ্গী বাজার, গাজিপুর, ঢাকা।
বরিশালঃ ৩৪৫ সিটি প্লাজা ৩য় তলা ,ফজলুল হক এভিনিউ বরিশাল।
কলাপাড়াঃ মমতা মার্কেট,বাদুড় তলী সূইজগেট,কলাপাড়া,পটুয়াখালী।
E-mail: somoynewskp@gmail.com
মোবাইলঃ 01721987722

Design & Developed by
  এই সরকার একটা অভয়দ সরকার বলে মন্তব্য করেছেন ডাঃ মাহবুবুর রহমান লিটন।   বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা মুখে যা বলেন তা তিনি করে দেখান’।।    বই মেলায় আসছে সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ এর বই ❝অসমাপ্ত সেই তুমি❞   টেকনাফে বিজিবি’র পৃথক অভিযান, ২ লক্ষাধিক ইয়াবা জব্দ।   কাশিয়ানীতে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার।   কাশিয়ানীতে নকল সার কারখানার সন্ধান।   আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সাংবাদিক কল্যাণ সংস্থার কাশিয়ান উপজেলা শাখার উদ্বোধন।    তুমব্রু সীমান্তে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে বিজিবি মহাপরিচালক।   ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলা সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-২।   পটুয়াখালীতে কলেজের উপ-অধ্যক্ষ নিয়োগে প্রক্রিয়ায় জটিলতা,ভুক্তভোগীর ক্ষোপ প্রকাশ।    পায়রা বন্দরে পায়রা প্রিপারেটি স্কুলের উদ্বোধন।   ঠাকুরগাঁও-৩ আসনে লাঙ্গল বিজয়ী।   ঢাবির ৪ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী ও ১০৯ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিষ্কার।   জমজমের পানির নামে কী বিক্রি হচ্ছে বায়তুল মোকাররমে।   চকরিয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারী পার্কে সিংহ রাসেলের মৃ,ত্যু, চিকিৎসাধীন টুম্পা।   কক্সবাজারে হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার।   স্থানীয় জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থান তৈরি করছে সরকারের ইজিপিপি প্রকল্প- দুর্যোগ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক   হত্যা মামলায় বাবা মা ও ছেলের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড।   ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন নগর ভবন নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন।   নব গোপালগঞ্জ জেলায় যোগদানকৃত জেলা প্রশাসকের সঙ্গে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত।